--> অনলাইনে আয় ২০২০: অনলাইনে আয় করার সহজ উপায়! নতুনদের জন্য (Step By Step)

অনলাইনে আয় ২০২০: অনলাইনে আয় করার সহজ উপায়! নতুনদের জন্য (Step By Step)

SHARE:

কোন পুজি ছাড়াই প্রতি মাসে ঘরে বসে অনলাইন ইনকাম করুন লক্ষ লক্ষ টাকা ইন্টারনেট বা অনলাইন থেকে পার্ট-টাইম বা অল-টাইম আয় করুন।

আপনি নিশ্চয় ২০২০ সালে এসে অনলাইনে আয় করার নিশ্চিত উপায় খুজছেন। আবার কেউ কেউ অনলাইন হতে সহজে আয় করে আয়ের টাকা বিকাশে পেমেন্ট পেতে চাইছেন। অনলাইন হতে আয় করার নিশ্চিত কিছু উপায় রয়েছে। যেমন আমি (Onlinekaj.com )এই সাইট হাজার টাকা ইনকাম করে নিচ্ছি। অনলাইন হতে আয় করার জন্য শুধুমাত্র আপনার মেধা, শ্রম ও সময়ের প্রয়োজন। আপনি এই তিনটি জিনিস সঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারলে ঘরে বসে মোবাইলের মাধ্যমে অনলাইন হতে সহজে টাকা আয় করতে পারবেন। আপনি হয়ত বিষয়টি বিশ্বাস করতে চাইছেন না! কোন সমস্যা নেই। আমি আপনাকে উদাহরনের মাধ্যমে দেখিয়ে দেব কিভাবে আপনি ঘরে বসে মোবাইলের মাধ্যমে অনলাইন হতে আয় করবেন?
অনলাইনে আয় ২০২০: অনলাইনে আয় করার সহজ উপায়! নতুনদের জন্য (Step By Step)
আপনি  একজন ছাত্র, গৃহিনী কিংবা চাকরিজীবী যাই হয়ে থাকেন না কেন, আপনার লেখা-পড়া বা কাজের ফাঁকে কিংবা চাকরির পাশাপাশি অবসর সময়ে ২/৩ ঘন্টা ব্যয় করে মাসে মোটামুটি ভালোমানের স্মার্ট এমাউন্ট অনলাইন হতে আয় করতে সক্ষম হবেন। এ ক্ষেত্রে আপনার চাকরি কিংবা লেখা পড়ায় কোন ধরনের ব্যাঘাত ঘটবে না। আপনার মূল প্রফেশন ঠিক রেখেও সামান্য অল্প সময় ব্যয় করে অনলাইন হতে বাড়তি ‍কিছু টাকা আয় করে নিতে পারবেন।

আপনি একটি বিষয় ঠান্ডা মস্তিস্কে ভেবে দেখুন, আরো অন্য দশজন স্কুল কিংবা কলেজ পড়ুয়া ছাত্রদের মত আপনিও আপনার মূলবান সময়টুকু ফেইসবুক, টুইটার ও ইউটিউবে ফানি ভিডিও দেখা সহ বিভিন্ন রকম সামাজিক যোগাযোগের সাইটে ব্যয় করছেন। কখনো কখনো আমার নিজের প্রতিও খুব দুঃখ হয় কেন আমি বিগত বৎসরগুলোতে এ সকল সাইটে অযথা সময় ব্যয় করলাম। আমি নিজে প্রায় দুই বৎসর ফেইসবুক, টুইটার এবং বিভিন্ন অনলাইন গেম খেলে সময় পার করেছি। এখন আমি ভাবি কেন আমি এ সময়টুকো ঐ সমস্ত সামাজিক যোগাযোগের সাইটে ব্যয় না করে ব্লগিং করে কাটালাম না।

এ রকম আমার আপনার অনেক বন্ধু বান্ধব আছে যারা ঠিক একইভাবে বিভিন্ন সামজিক যোগাযোগের সাইটে চ্যাট করে প্রতিদিন ঘন্টার পর ঘন্টা সময় পার করে দিচ্ছে। আপনি যদি হিসাব করে দেখেন, আপনি প্রতিদিন গড়ে কতটুকু সময় ইন্টারনেট ব্যবহার করে পার করছেন, তাহলে বেশীরভাগ লোকই বলবে 4-৩ ঘন্টা। তাহলে আপনি কি ভাবছেন এ সংখ্যা বছরে কতো গিয়ে দাড়াচ্ছে। বছরে অন্তত ১০০০-১২০০ ঘন্টা পার করছেন ইন্টারনেটে বিভিন্ন সমাজিক যোগাযোগ এর সাইটে চ্যাট করে। কিন্তু একবারও কি আপনি নিজের কাছে প্রশ্ন করেছেন যে, আপনার এ মূল্যবান সময়গুলো ব্যয় করে আপনি কি পেয়েছেন? আমি নির্ধিদ্বায় বলতে পারি এর শুরু থেকে শেষ অব্দি শুধু শূন্য আর শূন্য।

আপনার মূ্ল্যবান সময়ের সামান্য সময় ব্যয় করে যদি কিছু টাকা পয়সা ইনকাম করে নিজের প্রয়োজন মিটাতে পারেন, তাহলে অন্যের কাছ থেকে ধার কর্জ করে চলার চেয়ে খারাপ কি? ইন্টারনেট জগৎটা Facebook, Social Media and Gaming এর মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। আপনার সামান্য ইচ্ছা শক্তির বলে আপনি ইন্টারনেট হতে কিছু টাকা আয় করতে পারেন। এই জন্য আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করবো কিভাবে ছাত্র-ছাত্রী, গৃহিনী এবং কিশোর বয়সি আধুনিক জেনারেশনরা ইন্টারনেট হতে অল্প কিছু টাকা উপার্জন করে নিজের ব্যক্তিগত প্রয়োজন মিটাতে পারেন।

কেন ছাত্রদের টাকা প্রয়োজন?

স্কুল কিংবা কলেজ সকল স্তরের ছাত্র-ছাত্রীদের কিছু Extra Pocket Money এর প্রয়োজন হয়। এই অল্প টাকা দিয়েই সে তার নিত্য প্রয়োজনীয় ছোট খাটো সখ এবং প্রয়োজন মিটিয়ে নিতে পারে। তাছাড়াও স্বাভাবিকভাবে এখনকার জেনারেশনের ছাত্রদের Smartphone, Gaming consoles, Cool cloths ইত্যাদি লাগেই। এ গুলো তাদের চলার পথকে আর Smart এবং সুগম করে। এই ছোট খাটো ব্যাপারগুলো অনেক সময় আপনার ফ্যামেলির কাছ থেকে চেয়ে নিতে পারবেন না। 
স্কুল কিংবা কলেজ সকল স্তরের ছাত্র-ছাত্রীদের কিছু Extra Pocket Money এর প্রয়োজন হয়। এই অল্প টাকা দিয়েই সে তার নিত্য প্রয়োজনীয় ছোট খাটো সখ এবং প্রয়োজন মিটিয়ে নিতে পারে।
এই জন্য আপনি যদি অল্প সময় ব্যয় করে অনলাইন হতে কিছু টাকা আয় করে নিজের প্রয়োজন নিজেই মিটাতে পারেন, তাহলে নিজেকে যেমন আত্ম নির্ভরশীল মনে হবে তেমনি প্রয়োজন গুলোও মিটে যাবে। তাছাড়া অনেক গৃহিনী আছেন যাদের বাসায় বসে থাকা ছাড়া কোন কাজই থাকে না। তারা বেশীরভাগ সময় ব্যয় করে ফেইসবুকে বন্ধুদের সাথে চ্যাট করে। আপনি অযথা এই সময় ব্যয় না করে যদি নিজের কিছু প্রয়োজন মিঠাতে পারেন বা অল্প আয় করতে পারেন তাহলে দুষের কি? নিচে আমি অনলাইন হতে আয় করা সহজ কিছু কৌশল দেখাবো, যেখান থেকে আপনিও ইচ্ছা করলে কিছু পয়সা উপার্জন করে নিতে পারবেন।

মোবাইলে অনলাইনে আয়ঃ

আপনি মোবাইল দিয়ে অনলাইনে আয় করতে পারবেন কি না, সে বিষয়টি আমি শুরুতে ক্লিয়ার করে নিচ্ছি। কারণ অধিকাংশ লোকের কাছে কম্পিউটার বা ল্যাপটপ না থাকার কারনে অনলাইন কাজ করতে চায় না। 
আপনি মোবাইল দিয়ে অনলাইনে আয় করতে পারবেন কি না, সে বিষয়টি আমি শুরুতে ক্লিয়ার করে নিচ্ছি। কারণ অধিকাংশ লোকের কাছে কম্পিউটার বা ল্যাপটপ না থাকার কারনে অনলাইন কাজ করতে চায় না।
তারা মনেকরে কম্পিউটার ছাড়া মোবাইল দিয়ে অনলাইন হতে আয় করার সম্ভব নয়। কিন্তু আপনি হয়ত জানেন না যে, কম্পিউটার ছাড়াও শুধুমাত্র মোবাইল দিয়ে বিভিন্ন উপায়ে ঘরে বসে অনলাইনে সহজে আয় করা যায়। আপনার নিকট যদি একটি এন্ড্রয়েড মোবাইল থাকে তাহলে আপনি সেই স্মার্টফোন দিয়ে অনলাইন হতে মাসে কিছু টাকা আয় করে নিতে পারবেন।

অনলাইনে আয় বিকাশে পেমেন্টঃ

অনলাইন কাজ শুরু করার পূর্বে অনেকের মনে আরেকটি প্রশ্ন জাগে যে, আমি অনলাইন হতে টাকা আয় করার পর সেই টাকা কিভাবে হাতে পাব? অনলাইন হতে আয়ের টাকা কিভাবে হাতে পাবেন সেই বিষয় নিয়ে আপনাকে চিন্ত করতে হবে ন। অনলাইনের যে কোন প্লাটফর্ম হতে আপনি টাকা আয় করুন না কেন সেই টাকা আপনার হাতে পৌছতে কোন ধরনের সমস্যা হবে না। বর্তমানে প্রত্যেকটি অনলাইন প্লাটফর্ম তাদের গ্রাহকের উপার্জিত টাকা বিশ্বস্ততার সহিত হাতে পৌছে দেয়। এ ক্ষেত্রে আপনার আয়ের টাকা কেবলমাত্র বিকাশের মাধ্যমে পেতে হবে এমনটা চিন্তা করা উচিত নয়। অনলাইনে সকল বড় প্লাটফর্মগুলে অধিকাংশ ক্ষেত্রে ব্যাংকের মাধ্যমে টাকা হাতে পৌছে দেয়। সেই জন্য অনলাইন হতে আয়ের টাকা খুব সহজে আপনার যেকোন ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে নিতে পারবেন।
অনলাইন কাজ শুরু করার পূর্বে অনেকের মনে আরেকটি প্রশ্ন জাগে যে, আমি অনলাইন হতে টাকা আয় করার পর সেই টাকা কিভাবে হাতে পাব?
আমরা আজ অনলাইনে আয়ের যে পদ্ধতিগুলো শেয়ার করব সেগুলো হতে আয়ের টাকা আপনি বিকাশ পেমেন্টের মাধ্যমে নিতে পারবেন না। তবে কিছু কিছু উপায় আছে যেগুলো কন্টাকের মাধ্যমে ব্যাংকে না নিয়ে বিকাশ পেমেন্ট বা সরাসরি নিতে পারবেন। আসলে অনলাইনের আর্ন্তজাতিক কোন প্লাটফর্ম এখনো পর্যন্ত আয়ের টাকা বিকাশের মাধ্যমে পেমেন্ট করছে না। সবগুলো ভালোমানের কোম্পানি তাদের নিকট হতে আয়ের টাকা ব্যাংক ও পেপল একাউন্ট এর মাধ্যমে পরিশোদ করে।

অনলাইনে আয় করার নিশ্চিত উপায়ঃ

অনলাইনে আমার অনেক পরিচিত লোক রয়েছে যারা অনলাইন হতে প্রতি মাসে ভালোমানের টাকা উপার্জন করছে। আবার এমনো কিছু পরিচিত ব্যক্তি আছে যারা অনলাইন হতে আয় করে তাদের পরিবারেরে ভরণ পোষণ সহ বিলাসিতার জীবন যাপন করছে। আমি নিজেও ২০১৭ সাল হতে অদ্যাবধি চাকরির পাশাপাশি প্রতি মাসে কিছু টাকা আয় করে যাচ্ছি। আশাকরি আপনার সকলের আন্তরিকতা ও ভালবাসা পেলে ভবিষ্যতে আয়ের পরিমানটা আরো বৃদ্ধি করতে পারব।
অনলাইনে আয় করার নিশ্চিত উপায়ঃ
এখন আমরা আপনাদের সাথে অনলাইনে আয় করার কয়েকটি নিশ্চিত উপায় শেয়ার করব। আশাকরি আপনি ধৈর্য্যধারণ করে ২/৪ মাস কাজ করলে আপনিও মাসে মাসে অনলাইন হতে কিছু টাকা আয় করতে সক্ষম হবেন। অনলাইনে কাজ শুরুর দিকে আপনার কাছে বিষয়টি কঠিন মনে হবে। কিন্তু ধিরে ধিরে আপনার কাছে সহজে হয়ে উঠবে। আপনি একটি জিনিস মনে রাখবেন, কেউ একদিনে বড় হয়নি, বড় হওয়ার জন্য সময় দিতে হয় এবং ধৈর্য্য ধরে কাজ চালিয়ে যেতে হয়।

০১। YouTube হতে টাকা আয়ঃ

অনলাইন থেকে টাকা উপার্জনের সবচেয়ে সহজ পথ হচ্ছে YouTube. এখান থেকে যে কোন বয়সের লোক খুবই সহজে টাকা উপার্জন করতে পারেন। ইন্টারনেট বিশ্বের জনপ্রিয় ১০ ওয়েবসাইটের মধ্যে YouTube হচ্ছে একটি। আপনি ইচ্ছে করলেই এখান থেকে কম সময় ব্যয় করে অল্প অভীজ্ঞতা নিয়ে মাসে ভালো মানের টাকা উপার্জন করতে পারেন। এই জন্য আপনাকে যেটি করতে হবে- প্রথমে বিভিন্ন ভাল মানের ভিডিও YouTube এ আপলোড করতে হবে। ভিডিও তৈরি করার জন্য আপনার মোবাইল ফোনকে ব্যবহার করতে পারেন।
অনলাইন থেকে টাকা উপার্জনের সবচেয়ে সহজ পথ হচ্ছে YouTube. এখান থেকে যে কোন বয়সের লোক খুবই সহজে টাকা উপার্জন করতে পারেন।
আপনি যদি ভ্রমন প্রিয় লোক হন তাহলে বিভিন্ন সুন্দর সুন্দর প্রকৃতিক দৃশ্যগুলো আপনার মোবাইলের ক্যামেরায় ফ্রেমবন্দী করেও এ কাজটি করতে পারেন। অথবা আপনি যে বিষয় ভালভাবে জানেন সে বিষয়ে বিভিন্ন ভিডিও টেউটরিয়াল তৈরী করেও কাজটি করতে পারেন। যারা গৃহিনী রয়েছেন তারা চাইলে বিভিন্ন রান্নার রেসিপি টিপস ও সাজগোজের করার ভিডিও তৈরি করে নিতে পারেন। এখনকার মোবাইল ফোনে অনেক ভালোমানের ভিডিও রেকর্ডিং করা যায় বিধায় আপনি চাইলে আপনার মোবাইল দিয়ে ক্যামেরার সামনে বসে ভিডিও বানাতে পারেন অথবা ক্যামেরার সামনে আসতে না চাইলে মোবাইল দিয়ে স্ক্রিন ভিডিও রেকর্ড করে বিভিন্ন ধরনের টিউটরিয়াল ভিডিও তৈরি করতে পারেন।  কিন্তু মনে রাখবেন কারও কোন নকল ভিডিও কপি করে এটি করা যাবে না। এতে করে হিতের বিপরীত হতে পারে।

০২। ব্লগিং করে বা ব্লগে আর্টিকেল লিখেঃ

আপনি গুগল ব্লগারে কিংবা ওয়ার্ডপ্রেসে বিনা মূল্যে একটি ব্লগ তৈরী করে নিতে পারেন। গুগল ব্লগার সম্পূর্ণ ফ্রিতে একটি ব্লগ তৈরি করার সুযোগ দিচ্ছে। তাছাড়া গুগল ব্লগার দিয়ে ব্লগ তৈরি করা খুব সহজ হওয়ায় আপনি চাইলে আপনার মোবাইল দিয়ে মাত্র ৫ মিনিটে নিজের একটি ব্লগ তৈরি করে নিতে পারেন। গুগল ব্লগার দিয়ে ব্লগ তৈরি করার বিষয়ে আমাদের ব্লগে একটি বিস্তারিত পোস্ট রয়েছে। আপনার নিজের একটি ব্লগ তৈরি করার জন্য নিচের লিংক থেকে আমাদের ব্লগে পোস্ট দেখে নিতে পারেন।
ব্লগিং করে বা ব্লগে আর্টিকেল লিখেঃ
তবে একটি বিষয় মরে রাখবেন ব্লগ তৈরী করে থেমে থাকলে হবে না। আপনার যে বিষয়ে পরিপূর্ণ জ্ঞান আছে, আপনি সে বিষয় নিয়ে লিখে যাবেন। এ ক্ষেত্রে হয়তো আপনি প্রথম ২-৩ মাস একটু কষ্ট করতে হবে। তাই বলে আপনি নিরাশ হয়ে থেমে থাকবেন না। আপনি প্রতিদিন নিত্য নতুন আর্টিকেল লিখতে থাকেন। আপনার বিষয়টি যদি ইউনিক এবং জ্ঞানগর্ভপূর্ণ হয় তাহলে ভিজিটর অবশ্যই আপনার ব্লগে আসবে। এ ক্ষেত্রে সফলতা পেতে আপনাকে বেশী দিন অপেক্ষা করতে হবে না। আপনি নিজে নিজেই টাকা উপার্জনের পথ সুঘম করে নিতে পারবেন।

০৩। Freelancing – একজন লেখক হয়েঃ

অনলাইনে আয়ের ক্ষেত্রে বর্তমানে Freelancing একটি জনপ্রিয় প্লাটফর্ম। Freelancing করে বর্তমানে বাংলাদেশের হাজার হাজার লোক ঘরে বসে অনলাইন হতে টাকা আয় করছে। তাছাড়া বর্তমান সরকার দেশের শিক্ষিত বেকার যুবকদের কাজে লাগানোর জন্য Freelancing বিষয়ে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কর্মসূচীর ব্যবস্থা চালু করেছে। অনেকে সেই সমস্ত সরকারী প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান হতে প্রশিক্ষণ গ্রহন করে Freelancing এর মাধ্যমে মাসে লক্ষ্য লক্ষ্য টাকা ইনকাম করে স্বাবলম্বি হচ্ছে।
Freelancing – একজন লেখক হয়েঃ
Freelancing হচ্ছে এমন একটি পদ্ধতি যেখানে আপনি আপনার লেখা বা আর্টিকেল শেয়ার করে টাকা উপার্জন করে নিতে পারবেন। আপনি যদি একজন ভাল লেখক হন কিংবা যে কোন বিষয়ে ভাল জ্ঞান রাখেন, তাহলে সে বিষয়ে ভালোমানের আর্টিকেল লিখে Freelancing এর কাজ করতে পারবেন। আপনার লেখার মান যদি ভাল হয় তাহলে Freelancing এ আপনার লেখার মূল্য অর্থাৎ টাকা উপার্জনের পরিমান দিন দিন বাড়তে থাকবে। এখান থেকে মাসে লাখ টাকা উপার্জন করে এমন লোকও আছে। এখানে যার যার মেধা অনুসারে তার প্রতিফলন ঘটাতে পারে।

০৪। Adsense থেকে টাকা উপার্জনঃ

Adsense হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপনের (Advertisement) Program. এটি গুগল কর্তৃপক্ষ সয়ং নিজে পরিচালনা করছে। আপনি যদি আপনার ব্লগ বা ইউটিউব চ্যানেলকে ভালোমানের Platform এ নিয়ে যেতে পারেন এবং ব্লগে বা ইউটিউব চ্যানেলে প্রচুর পরিমানে ভিজিটর থাকে তাহলে Adsense থেকে আপনি হাজার হাজার টাকা উপার্জন করতে পারবেন।
Adsense হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় বিজ্ঞাপনের (Advertisement) Program. এটি গুগল কর্তৃপক্ষ সয়ং নিজে পরিচালনা করছে।
এ পদ্ধতীতে আপনার ব্লগে কিংবা ইউটিউব ভিডিওতে Adsense এর বিজ্ঞাপন ব্যবহার করে ক্লিক প্রতি ডলার আয় করতে পারবেন। অনেকে বলে Adsense Approve করাটা অনেক কঠিন কাজ। কিন্তু আমি বলছি মোটেও কঠিন কাজ নয়। আপনি যদি মানসম্মত ২৫-৩০ টি ইউনিক কনটেন্ট লিখতে পারেন তাহলে নিঃসন্দেহে Adsense Approve হয়ে যাবে। এখান থেকে আপনি দীর্ঘ দিন যাবত টাকা উপার্জন করে যেতে পারবেন।

০৫। প্রশ্ন উত্তরের মাধ্যমে :

আপনি যদি বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষ হয়ে থাকেন, যেমন ধরুন - Math, English, Physics, Biology, Humanities ইত্যাদি। তাহলে আপনি প্রশ্ন উত্তর প্রদানের মাধ্যমে ইন্টারনেটে অন্যের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করে দিতে পারেন। আপনি যদি তাদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর সঠিকভাবে দিতে পারেন, তাহলে ইন্টারনেটে অনেক সাইট আছে যেগুলোতে জয়েন করার জন্য আপনার সাথে যোগাযোগ করা হবে। 
আপনি যদি বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষ হয়ে থাকেন, যেমন ধরুন - Math, English, Physics, Biology, Humanities ইত্যাদি।
তাদের সাইটে জয়েন করার মাধ্যমে ঐ কোম্পানী হতে আপনি ভাল মানের টাকা উপার্জন করতে পারবেন। এ ক্ষেত্রে আপনি বেশ চালাক এবং বুদ্ধিমান হতে হবে। আপনি বুঝতেই পারছেন আপনার চালাকি এবং মেধাকে কাজে লাগিয়ে এখান থেকে টাকা উপার্জন করতে হবে।

০৬। EBAY and AMAZON এ আপনার Products বিক্রির মাধ্যমেঃ

আপনারা হয়তো জানেন যে, ইন্টারনেট এর মাধ্যমে পন্য কেনা কাটার জন্য জনপ্রিয় ওয়েবসাইট হচ্ছে Ebay and Amazon. এখানে লোকজন তাদের বিভিন্ন ধরনের Products বিক্রি করার জন্য বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকেন। 
EBAY and AMAZON এ আপনার Products বিক্রির মাধ্যমেঃ
আপনার পন্যটি যদি ক্রেতার কাছে ভাল মনে হয়, তাহলে পন্যটি কেনার জন্য ক্রেতারা আপনার সাথে যোগাযোগ করবে। আপনি যদি আপনার Products বিক্রি করে একজন ভালোমানের বিক্রেতা হতে পারেন, তাহলে এখান থেকে কমদামে বিভিন্ন জিনিস ক্রয় করে ভালো দামে বিক্রয় করে লাভবান হতে পারেন। তবে এই সুবিধা পাওয়ার জন্য আপনাকে আগে একজন ভাল মানের বিক্রেতা হিসেবে প্রমান করতে হবে।

০৭। গ্রাফিকস ডিজাইনঃ

অনলাইনে গ্রাফিকস ডিজাইনের চাহিদা প্রচুর পরিমানে রয়েছে। অনলাইনে ঘরে বসে আয়ের ক্ষেত্রে গ্রাফিকস ডিজাইন একটি ভালো উপায়। যারা এই কাজে দক্ষ, তারা বিভিন্ন ডিজাইন বিষিয়ক অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলোতে তাদের নিজেস্ব ডিজাইন দিয়ে রাখেন। সেখান থেকে তাদের ডিজাইনগুলো ক্রেতাদের পছন্দ হলে কিনে নেয়। 
এ ধরনের একটি পণ্য অনেকবার বিক্রি হয়, অর্থাৎ একটি ভালো নকশা থেকেই দীর্ঘদিন পর্যন্ত আয় হতে থাকে। অনলাইনে এ ধরনের অনেক ওয়েবসাইটে গ্রাফিকসের কাজ বিক্রি করা যায়। গ্রাফিক্স ডিজাইন শেখার কাজটি আপনি প্রাথমিকভাবে এডোবি ফটোশপ থেকে শুরু করতে পারেন।

০৮। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমঃ

জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম, স্ন্যাপচ্যাট এখন আর শুধু বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগের জন্য নয়। এগুলোকে কাজে লাগিয়ে আপনি সহজে অনলাইন হতে আয় করতে পারবেন। আপনার ৩-৫ টি ফেসবুক পেজে প্রচুর পরিমানে ফলোয়ার থাকলে আপনি ঘরে বসে খুব সহজে বিভিন্ন বিজ্ঞাপন কোম্পানির নিকট থেকে ফেসবুকে টাকা আয় করতে পারবেন। কারণ যেকোন কোম্পানির পন্যের প্রচারের জন্য এখন ফেসবুক ও টুইটার খুবই জনপ্রিয় মাধ্যম। 
সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমঃ
এ ক্ষেত্রে আপনার জনপ্রিয় কোন সোশ্যাল মিডিয়া থাকলে বিভিন্ন বিজ্ঞাপন কোম্পানি আপনার সাথে যোগাযোগ করবেই। তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় ফ্যান-ফলোয়ার তৈরিসহ তাঁদের ধরে রাখতে প্রচুর ধৈর্য ও প্রাসঙ্গিক বিষয় হওয়া জরুরি।

০৯। ডাটা এন্ট্রিঃ

অনলাইনে সহজ কাজগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে ডাটা এন্ট্রি। এ ক্ষেত্রে অবশ্য আয় খুব কম। তবে এ ধরনের কাজ অটোমেশনের কারণে এখন খুব কম পাওয়া যায়। যাদের কম্পিউটার, ইন্টারনেট ও দ্রুতগতির টাইপিং দক্ষতা আছে, তারা এ ধরনের কাজ করতে পারবেন। অধিকাংশ ফ্রিল্যান্সিং সাইটে এ ধরনের কাজ রয়েছে। তবে যাদের কোনো কাজে দক্ষতা থাকে, তারা সহজে কাজ পান এবং দ্রুত আয় বাড়াতে পারেন।

১০। পিটিসিঃ

অনলাইনে অনেক ওয়েবসাইট আছে যেগুলোর বিজ্ঞাপনে ক্লিক করলে টাকা দেওয়া হয়। এ ধরনের সাইটকে পিটিসি সাইট বলে। প্রকল্প শুরুর আগে নিবন্ধন করতে হয়। তবে মনে রাখতে হবে পিটিসি সাইটগুলো বেশির ভাগ ভুয়া হয়। তাই কাজের আগে নিশ্চিত হতে হবে সেটি প্রকৃত সাইট কি না। অনেক সময় বন্ধুত্বের রেফারেন্স দিয়ে আয় করতে পারেন।

 অনলাইন ইনকাম পদ্বত্বি Bonus Tips:-

অনলাইন ইনকাম করার পদ্বত্বি:-আমি আপনাকে প্রথমে আমার প্রিয় অনলাইন কাজগুলি দেখাব এবং তারপরে অন্যান্য অনলাইন চাকরিগুলি যা বৈধ,আপনি নিজের ঘরে বসে করতেে পারবেন।    

⭐⭐⭐⭐. ব্লগিং-থেকে🔥🔥

ব্লগিংয়ের চেয়ে ভাল আর কোনও  (অনলাইন ইনকাম ) কাজ নেই। আপনি ব্লগিং থেকে প্রতি মাসে 10000 এরও বেশি উপার্জন করতে পারবেন।  
ব্লগিংয়ের চেয়ে ভাল আর কোনও (অনলাইন কাজ) নেই।
আমি গত 2 বছরে ব্লগিংয়ের মাধ্যমে 50000 হাজার ডলারেরও বেশি আয় করেছি।
দেখুন এ মাসে আমি কত টাকা ইনকাম করেছে গুগল এডসেন্স থেকে

আমি প্রতিটি শিক্ষার্থী, গৃহিণী এবং যে কেউ বাড়ি বসে কাজ করতে চায় তাকে আমি এই অনলাইন কাজের করার জন্য আহবান জানায়।
আপনি যদি ব্লগিং শুরু করতে চান তবে এখানে সহজ পদক্ষেপগুলি রয়েছে:-
  • মাত্র 30 মিনিটের মধ্যে একটি ব্লগ শুরু করুন (100 ডলার বিনিয়োগের চেয়ে কম)
  • কিছু ইউনিক পোস্ট প্রকাশ করা শুরু করুন (আপনার শখ, ধারণা, অভিজ্ঞতা বা আপনার পছন্দ মতো কোনও বিষয় সম্পর্কে লিখুন)
  • ট্র্যাফিক পেতে আপনার ব্লগ প্রচার করুন।
  • অ্যাডসেন্স, প্রোগ্রাম বা অন্য এ্যড কম্পানির সাথে ব্লগ এাড  করুন।
আপনি সহজেই ব্লগিংয়ের মাধ্যমে মাসে 500 ডলার থেকে 5000 ডলার উপার্জন করতে পারেন। আমি আপনাকে নিচে একটি ভিডিও শেয়ার  করেছি। যেখানে আমি গুগল অ্যাডসেন্স থেকে আপনি আয় করবেন কিভাবে।   


⭐⭐⭐.বিজ্ঞাপন ক্লিক থেকে অনলাইন ইনকাম:-

এটি সবচেয়ে সহজ অনলাইন কাজ কারণ 10 বছরের একটি শিশুও এটি করতে পারে। এখানে, আপনাকে এমন কিছু  সাইটগুলিতে যোগদান করতে হবে যা বিজ্ঞাপন ক্লিক করতে এবং পড়ার জন্য অর্থ প্রদান করে।
এটি সবচেয়ে সহজ অনলাইন কাজ কারণ 10 বছরের একটি শিশুও এটি করতে পারে।
এই সাইটগুলিতে 15-20 মিনিট কাজ করে 250 ডলার থেকে 500 ডলার আয় করা সহজ।আমি গত 2-4 বছর ধরে নিয়মিতভাবে কিছু বৈধ সাইটগুলিতে কাজ করে যাচ্ছি এবং এই সাইটগুলি থেকে ৪ লক্ষ মাসিক আয় উপার্জন করছি।আমি মুল একটি সাইট থেকে $ 60,000 এরও বেশি টাকা  উপার্জন করেছি। আমাকে বিশ্বাস করুন, আমি এই সাইটে এত বেশি ইনকাম করার জন্য 10 মিনিটেরও বেশি কাজ করি নি।
আমি আপনাকে এই উপরের সাইট সহ 5 টির মতো বৈধ সাইটগুলি দেখাব যেখানে আপনি অল্প সময়ের জন্য ভাল উপার্জন করতে পারবেন।
এই অনলাইন কাজ করে টাকা উপার্জনের জন্য কেবলমাত্র 4 টি সহজ পদক্ষেপ-
  1. কিছু বৈধ পিটিসি সাইটগুলিতে যোগদান করুন (এতে যোগ দেওয়া ফ্রী )
  2. আপনার অ্যাকাউন্টে প্রতিদিন লগইন করুন।
  3. বিজ্ঞাপন দেখুন এবং অন্যান্য কাজগুলি সম্পূর্ণ করুন।
  4. এবং ভালো মানে টাকা ইনকাম করুন।
এখানে 5 লিজিট trust সাইটগুলিতে যোগদান করুন যা এই কাজটি সরবরাহ করে? এখানে আরও কয়েকটি সর্বশেষ সাইট। join ClixSense today যেহেতু আমরা আরও পিটিসি সাইট এবং অন্যান্য আয়ের সুযোগগুলির জন্য গবেষণা করছি, আমরা আপনাকে আমার  ব্লগে সাইনআপ করার জন্য সুপারিশ করছি যাতে আমি আপনাকে ইমেলের মাধ্যমে আরও এমন সুযোগগুলি প্রেরণ করতে পারি।


⭐⭐⭐⭐. জরিপ কাজ

আমাদের মতো লোকদের জন্য বাড়ি থেকে সেরা অনলাইন কাজ jobs যারা তাদের বাড়ির আরামদায়ক থেকে 1-2 ডলার বা আরও বেশি কাজ করতে চান।আমি সপ্তাহে 1-2 ঘন্টা কাজ করি এবং কয়েকটি জরিপ সাইট থেকে প্রায় 400 ডলার উপার্জন করি।
আমি সপ্তাহে 1-2 ঘন্টা কাজ করি এবং কয়েকটি জরিপ সাইট থেকে প্রায় 400 ডলার উপার্জন করি।

এখানে কয়েকশো সেরা এবং  ফ্রী জরিপ সাইট রয়েছে যেখানে আপনি সাইনআপ করতে এবং নিয়মিত সমীক্ষা গ্রহণ করতে পারেন। একটি সমীক্ষা শেষ করার জন্য আপনি $ 5 থেকে 20 ডলার পাবেন।আপনি যদি 10-20 সাইটগুলিতে যোগদান করেন তবে আপনি এক মাসে সর্বনিম্ন 50 প্রদত্ত সমীক্ষা পেতে এবং প্রতি মাসে 1000 ডলারেরও বেশি উপার্জন করতে পারবেন।আমি আপনাকে সেরা জরিপ সাইটগুলির তালিকা দেখাব যেখানে আপনি নিয়মিত জরিপ  কাজ পেতে পারেন। আমি এই জরিপ সাইটগুলি থেকে নিয়মিত আয় করছি।তথ্যসূত্র: জরিপ সাইট মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র | জরিপ সাইট কানাডা | অন্য দেশ


⭐⭐⭐⭐. অ্যাফিলিয়েট

অ্যাফিলিয়েট  বিগ্ঙাপন আমার তালিকার আরেকটি প্রিয় অনলাইন কাজ এবং আমি বিভিন্ন অনুমোদিত প্রোগ্রামকে প্রচার করে প্রতিমাসে প্রায় 2500 ডলার করি।

অ্যাফিলিয়েট বিপণন আমার তালিকার আরেকটি প্রিয় অনলাইন কাজ এবং আমি বিভিন্ন অনুমোদিত প্রোগ্রামকে প্রচার করে প্রতিমাসে প্রায় 2500 ডলার করি।

এই বছর আমি অধিভুক্ত বিজ্ঞাপন আরও ফোকাস করছি এবং অনুমোদিত লক্ষ্য বিজ্ঞাপন সহ প্রতি মাসে 10000 অতিক্রম করা।অ্যাফিলিয়েট বিজ্ঞাপন মানে অ্যামাজন, সিজে, ম্যাক্সবাউন্টি ইত্যাদির মতো অনলাইন বণিকদের সাথে অনুমোদিত হওয়া এবং তাদের পণ্যগুলির প্রচার করা।আপনি কমিশন পাবেন যখনই কেউ আপনার প্রচারের সহায়তায় কোনও বণিক ওয়েবসাইটে সাইন আপ করার বা ওয়েবসাইট থেকে কিছু কেনার মতো কোনও ক্রিয়া সম্পন্ন করে।আপনি কয়েকশটি সেরা অনুমোদিত প্রোগ্রাম পাবেন যেখানে আপনি অনুমোদিত হিসাবে সাইন আপ করতে পারেন।এমনকি এমন শীর্ষস্থানীয় অনুমোদিত নেটওয়ার্কগুলি পাবেন যেখানে আপনি একক ড্যাশবোর্ড থেকে কয়েকশো অনুমোদিত প্রোগ্রামকে প্রচার করতে পারেন।বিশ্বব্যাপী কয়েক মিলিয়ন মানুষ অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং বা  বিজ্ঞাপন মাধ্যমে হাজার হাজার ডলার উপার্জন করছে।

⭐⭐⭐⭐.  ফ্রিল্যান্সিং কাজ:-

আমি কয়েক বছর আগে ফ্রিল্যান্সিং করতাম তবে এখন আমি আমার ব্লগিং এবং উপরে উল্লিখিত অন্যান্য অনলাইন জবগুলিতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছিলাম বলেই ছেড়ে দিয়েছি।
আমি ফ্রিল্যান্স অনলাইন চাকরির সাথে প্রতিমাসে প্রায় 1000 ডলার (প্রতি ঘন্টা প্রায় 10 ডলার - 20 ডলার) উপার্জন করছিলাম।
ডলার ইনকাম করুন
আমি ফ্রিল্যান্স অনলাইন চাকরির সাথে প্রতিমাসে প্রায় 1000 ডলার (প্রতি ঘন্টা প্রায় 10 ডলার - 20 ডলার) উপার্জন করছিলাম। আমি আমার ক্লায়েন্টদের জন্য নিবন্ধগুলি লিখতাম, এসইও পরামর্শ এবং পরিষেবাদি সরবরাহ করি, ওয়েব ডিজাইনের কাজ ইত্যাদি
ফ্রিল্যান্সিং হ'ল অনলাইনে বিক্রি করা যায় এমন কিছু দক্ষতা রয়েছে এমন ব্যক্তিদের জন্য অন্যতম সেরা অনলাইন কাজ।লোগো ডিজাইন করা, নিবন্ধ লেখা, ভার্চুয়াল সহকারী হিসাবে কাজ করা, কোডিং, ডেটা এন্ট্রি ওয়ার্ক, ওয়েবসাইট ডিজাইন, এসইও, ভিডিও এডিটিং এবং আরও অনেক তালিকাভুক্ত ইত্যাদি এখানে আপনি করতে পারেন শত শত ফ্রিল্যান্স কাজ।আপনি আপ ওয়ার্ক, ফ্রিল্যান্সার, ফাইভার ইত্যাদি ইত্যাদির মতো ফ্রিল্যান্স ওয়েবসাইটগুলিতে যোগদান করতে পারেন যেখানে আপনি এই জাতীয় কাজ পেতে পারেন এবং প্রতি ঘন্টা 10 থেকে 15 ডলার উপার্জন করতে পারেন।

⭐⭐⭐⭐⭐.YouTube:-

ইউটিউব আগের মতো বাড়ছে না এবং এটি ইউটিউবারগুলির অনেকেরই আয়ের অন্যতম প্রধান উত্স হয়ে উঠছে।যদিও আমার কাছে একটি ইউটিউব চ্যানেল নাই।তবে আমি এর আগে কখনও ইউটিউব চেনেল  তৈরি করিনি।
ইউটিউব আগের মতো বাড়ছে না এবং এটি ইউটিউবারগুলির অনেকেরই আয়ের অন্যতম প্রধান উত্স হয়ে উঠছে।
আমি ইউটিউব অংশীদার প্রোগ্রামের জন্য অনুমোদন পেয়েছি এবং এই বছর আমি আরও ভিডিও প্রকাশ এবং ইউটিউব থেকে কিছুটা উপার্জন করতে আগ্রহী।
এই অনলাইন কাজের সুযোগ থেকে উপার্জনের জন্য মাত্র 3 টি পদক্ষেপ রয়েছে।
  1. আপনার ইউটিউব চ্যানেলটি শুরু করুন
  2. আকর্ষণীয় ভিডিওগুলি তৈরি এবং আপলোড করুন।
  3. ইউটিউব পার্টনার প্রোগ্রামে যোগদান করুন
  4. প্রতিদিন নগদ টাকা ইনকাম শুরু করুন।
আপনি যদি প্রতি সপ্তাহে কমপক্ষে 1 টি ভিডিও আপলোড করেন তবে আপনি সহজেই প্রতি মাসে 1000 ডলার থেকে 5000 ডলার তৈরি করতে পারেন।একটি বিখ্যাত এবং উচ্চ বেতনের ইউটিউবার হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় সমস্ত কিছু জানতে এই অর্থোপার্জন ভিডিওটি  দেখুনঃ

⭐⭐⭐⭐.রাইটিং থেকে অনলাইন ইনকাম:-

আমি উপরে উল্লেখ করেছি যে আমি ফ্রিল্যান্সিং করতাম এবং ফ্রিল্যান্সিং কাজগুলির একটি ছিল ফ্রিল্যান্স সাইটের মাধ্যমে আমার ক্লায়েন্টদের জন্য লেখার কাজ।
আমি উপরে উল্লেখ করেছি যে আমি ফ্রিল্যান্সিং করতাম এবং ফ্রিল্যান্সিং কাজগুলির একটি ছিল ফ্রিল্যান্স সাইটের মাধ্যমে আমার ক্লায়েন্টদের জন্য লেখার কাজ।

আমার ক্লায়েন্টরা প্রতিটি 500 শব্দের সামগ্রীর জন্য 20% থেকে 50 ডলার মূল্যের সামগ্রীর ধরণের উপর নির্ভর করে আমাকে দিতেন।অনলাইন রাইটিং কাজের একটি বিশাল চাহিদা রয়েছে। আপনার ক্লায়েন্টদের কাছ থেকে লেখার দায়িত্ব পাওয়ার জন্য আপনার অবশ্যই লেখার দক্ষতা থাকতে হবে।রিভিউ, ব্লগ পোস্ট, ইমেল, সামাজিক মিডিয়া লেখক, গল্প লেখক ইত্যাদি লেখার মতো অনেকগুলি অনলাইন কাজ রয়েছে যা আপনি ভাল উপার্জন করতে পারবেন।অনলাইন লেখার কাজগুলি থেকে প্রতি ঘন্টা 20 থেকে 50 ডলার উপার্জন করতে এই পোস্টটি দেখুন।

⭐⭐. ক্যাপচা থেকে অনলাইন ইনকাম :-

আপনি যদি সহজ অনলাইন চাকরির সন্ধান করেন তবে আপনার জন্য ক্যাপচা এন্ট্রি আরও ভাল বিকল্প। ক্যাপচা সলভার হিসাবে প্রতিদিন 2 ঘন্টা কাজ করে আপনি মাসে মাসে 200 থেকে 500 ডলার উপার্জন করতে পারেন।
আপনি যদি সহজ অনলাইন চাকরির সন্ধান করেন তবে আপনার জন্য ক্যাপচা এন্ট্রি আরও ভাল বিকল্প।

আমি ক্যাপচা সলভার হিসাবে কখনও কাজ করি নি কারণ এটি কম বেতনের কাজ।অনেক পাঠকই এই কাজের মাধ্যমে উপযুক্ত আয় করছেন।আপনি যদি এই অনলাইন কাজ থেকে কিছু অতিরিক্ত উপার্জন করতে চান তবে প্রথমে আপনাকে যা করতে হবে তা এখানে বর্ণিত কিছু লিট ক্যাপচা এন্ট্রি সাইটের সাথে নিবন্ধন করতে হবে।যেমন captchaclubনিবন্ধকরণের পরে, আপনাকে ব্যবহারকারীর নাম এবং পাসওয়ার্ড সরবরাহ করা হবে। আপনার অ্যাকাউন্টে লগইন করার পরে, আপনি ক্রমাগত ক্যাপচা চিত্রগুলি পাবেন।আপনাকে কেবল চিত্রগুলি থেকে লেখা টাইপ করতে হবে এবং জমা দিতে হবে।ক্যাপথকা এন্ট্রি অনলাইনে চাকরি থেকে ভাল আয় করতে আপনার টাইপিংটি খুব দ্রুত হওয়া উচিত।
1000 ক্যাপচা সমাধানের জন্য আপনি 1 ডলার থেকে 3 ডলার উপার্জন করতে পারবেন। আপনার টাইপিং গতির উপর নির্ভর করে আপনি 1-2 ঘন্টার মধ্যে 1000 ক্যাপচা টাইপ করতে পারেন।আপনি যদি প্রতিদিন 2-4 ঘন্টা কাজ করেন তবে আপনি এই সাধারণ কাজটি থেকে 500 ডলার পর্যন্ত উপার্জন করতে সক্ষম হবেন।

⭐⭐⭐⭐.  ডেটা এন্ট্রি থেকে অনলাইন ইনকাম:-

ডেটা এন্ট্রি আরেকটি অনলাইন কাজ যেখানে আমি কখনও কাজ করি নি। এমন শত শত সংস্থা রয়েছে যেখানে আপনি ডেটা প্রবেশের কাজগুলি খুঁজে পেতে পারেন।
ডেটা এন্ট্রি আরেকটি অনলাইন কাজ যেখানে আমি কখনও কাজ করি নি। এমন শত শত সংস্থা রয়েছে যেখানে আপনি ডেটা প্রবেশের কাজগুলি খুঁজে পেতে পারেন।

ডেটা প্রবেশের কাজের জন্য অ্যাসাইনমেন্ট পেতে আপনাকে এই সাইটগুলিতে নিবন্ধন করতে হবে। সাইনআপ যেমন সাইটগুলিতে বিনামূল্যে।আমরা অনেক বৈধ সাইট সংগ্রহ করেছি যেখানে আপনি ডেটা প্রবেশের কাজগুলি পেতে পারেন।আপনি আমাদের ওয়েবসাইটে সাইন আপ করতে পারেন যাতে আপনি আমাদের  অনলাইন কাজের প্রশিক্ষণ প্যাকেজ পেতে পারেন এবং সর্বদা আপডেট অনলাইন এন্ট্রি অনলাইন কাজের বিবরণ পেতে পারেন।

⭐⭐. স্মার্টফোনে :-

আর একটি সেরা অনলাইন কাজের সুযোগ আপনার স্মার্টফোনের সাথে আসে (অ্যান্ড্রয়েড এবং আইফোন উভয়)।এমন কয়েক ডজন মোবাইল অ্যাপ রয়েছে যা আপনাকে সাধারণ কাজ এবং অফারগুলি সম্পূর্ণ করার জন্য অর্থ প্রদান করে।
আর একটি সেরা অনলাইন কাজের সুযোগ আপনার স্মার্টফোনের সাথে আসে (অ্যান্ড্রয়েড এবং আইফোন উভয়)।
আমরা সর্বোচ্চ পর্যালোচনা এবং সহস্র সন্তুষ্ট সদস্য সহ ২০ টি সেরা মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনকে শর্টলিস্ট করেছি। তারা আরও ভাল এবং সময়মতো প্রদান করে।আপনি আপনার স্মার্টফোনে এই অ্যাপ্লিকেশনগুলি ইনস্টল করতে পারেন।ফ্রি গেমস খেলা, কিছু অফার চেষ্টা করা, ভিডিও দেখা, অ্যাপ্লিকেশন ইনস্টল করা, সাইটে সাইনআপ করা, সংক্ষিপ্ত জরিপ সমাপ্তকরণ ইত্যাদির মতো অফারগুলি সম্পূর্ণ করার জন্য আপনাকে অর্থ প্রদান করা হবে।

⭐⭐⭐⭐⭐.অ্যামাজন থেকে:-  

আপনি কি জানেন যে আমাজন সহজ অনলাইন কাজের সুযোগ সরবরাহ করে।mTurk একটি অ্যামাজন সংস্থা যেখানে আপনি ভাল আয় সম্পূর্ণ সংক্ষিপ্ত কাজ করতে পারেন।
অ্যামাজন থেকে অনলাইন ইনকাম করুন
আপনি শ্রমিক হিসাবে এমটুর্ক (অ্যামাজন মেকানিকাল তুর্ক) এর সাথে সাইন আপ করতে পারেন এবং সাধারণ কাজগুলি সম্পন্ন করার জন্য কিছু দুর্দান্ত অর্থোপার্জন শুরু করতে পারেন।খুব ছোট কাজের জন্য আপনি সামাজিক সাইটে কিছু ভাগ করে নেওয়া এবং পছন্দ করা, অনলাইনে কোনও পরিচিতির বিবরণ সন্ধান করা, ক্যাপচা সমাধান করা, কোনও পণ্য পর্যালোচনা ইত্যাদির জন্য 0.05 থেকে $ 1 উপার্জন করতে পারেন
এমন অনেকগুলি কাজ রয়েছে যেখানে আপনি $ 5 এরও বেশি অর্থ প্রদান করতে পারেন।বিশেষজ্ঞ এমটুর্ক কর্মী হওয়ার জন্য আপনার প্রয়োজনীয় সমস্ত কিছু জানতে আপনি এই এমটর্ক গাইডটি পড়তে পারেন।আপনার যদি mTurk এর মতো আরও সাইটের দরকার হয় তবে এই mTurk বিকল্পগুলি পরীক্ষা করে দেখুন।

⭐⭐⭐.  টিউটারিং:-

আপনি যদি অনলাইনে কাউকে শেখাতে পারেন তবে এটি আপনার জন্য সেরা ইন্টারনেট কাজ হবে। আপনার দক্ষতা এবং অভিজ্ঞতার উপর নির্ভর করে আপনি বাচ্চাদের, কলেজের শিক্ষার্থীদের বা অন্যদের শেখাতে পারেন।
টিউটারিং থেকে অনলাইন ইনকাম করুন

আপনি স্কাইপ বা অন্যান্য সফ্টওয়্যারের মাধ্যমে বিভিন্ন বিষয়, ভাষা বা কোর্স শিখিয়ে দিতে পারেন। এটি শুরু করতে আপনার একটি উচ্চ গতির ইন্টারনেট সংযোগ সহ একটি পিসি দরকার।আপনি একজন শিক্ষক হিসাবে প্রতি ঘন্টা 10 ডলারেরও বেশি উপার্জন করতে পারেন।আপনি আমাদের অনলাইন টিউটারিং কাজের গাইড পড়তে পারেন (শীঘ্রই আসছেন) যা আপনাকে টিউটর হিসাবে কাজ করার জন্য সঠিক পদক্ষেপগুলি দেখায় এবং কম সময়ে আরও বেশি আয় করতে পারে।

⭐⭐⭐⭐. ফাইবার

আমি ২০১২ সাল থেকে পাইকার হিসাবে বিক্রেতা হিসাবে কাজ করছি এবং খুব ভাল আয় করেছি income কিছু অতিরিক্ত আয়ের সন্ধান করা লোকদের জন্য ফাইভার একটি খুব সুন্দর সুযোগ।
ফাইবার-থেকে অনলাইন ইনকাম করুন

আপনি ফাইভারে বিক্রয়কারী হিসাবে যোগদান করতে পারেন এবং শত শত বিভিন্ন পরিষেবা সরবরাহ করেছেন। আপনি ফাইভারে প্রতিটি জিগ সম্পূর্ণ করার জন্য $ 5 থেকে 100 ডলার প্রদান করতে পারেন।আমি বেশ কয়েকটি পোস্ট লিখেছি যা ফাইভারে এই অনলাইন কাজটি কীভাবে করবেন তা আপনাকে ব্যাখ্যা করবে।
  • কীভাবে ফাইবারে অর্থোপার্জন করবেন?
  • 27 আরও সাইটগুলি আরও বেশি অর্থোপার্জনের জন্য ফাইবারকে পছন্দ করে
  • আপনি Fiverr থেকে কত টাকা উপার্জন করতে পারেন

⭐⭐⭐⭐. Transcription-থেকে অনলাইন ইনকাম করুন:-

Transcription  প্রতিলিপি সরল অর্থ অডিও এবং ভিডিও রেকর্ডিংগুলি থেকে হাতে লিখতে হয় এবং এটি পাঠ্যে বইয়ে  রূপান্তর করা।
Transcription-থেকে অনলাইন ইনকাম করুন
আপনি যদি এই অনলাইন কাজটি শুরু করতে চান তবে আপনার প্রচুর শ্রোতা ও টাইপিং দক্ষতা এবং ভাষাগত দক্ষতার মতো দক্ষতার প্রয়োজন।উচ্চ বেতনের ট্রান্সক্রিপশন কাজের মধ্যে রয়েছে মেডিকেল, আইনী, মিডিয়া, পুলিশ, বিনোদন ইত্যাদি etc. 35,000 থেকে বার্ষিক 1,50,000 ডলার কাজের উপর বেতন দেয়।আপনি যদি এটি শুরু করার ক্ষেত্রে গুরুতর হন তবে অনলাইন ট্রান্সক্রিপশন কাজের জন্য আপনার এই চূড়ান্ত গাইডের প্রয়োজন।এই কাজটি অনেক সহজ আবার অনেক কঠিন।তবে পারে তার কাছে সহজ আবার যে না পারে তার কাছে অনেক কঠিন।Textbroker এই ওয়েবসাইটে আপনি এমন হাজার হাজার ওডিও থেকে লিখা বা পিডিএফ ফাইল তৈরি করার জন্য হাজার হাজার কাজের ওফার করে থাকে।এই কাজ আপনি ঘরে বসেই করতে পারেন। এখানে আপনি ঘন্টা বা দিন চুক্তি কাজ পাবেন।ইনকাম করা টাকা আপনি পেপাল বা ব্যাংকের মাধ্যমে উঠাতে পারবেন। মনে রাখবেন,এই অনলাইন কাজ থেকে ভাল অর্থোপার্জনের জন্য অধ্যবসায় করুন এবং ধৈর্য বজায় রাখুন।

⭐⭐⭐⭐. OLX এবং QUIKR-থেকে ইনকাম করুন

যদি আপনি ঘরে বসে থেকেই extra income করার উপায় খুঁজছেন, তাহলে OLX এবং Quikr এর মতো ওয়েবসাইট আপনার সহায় ঘরে বসে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।OLX বা Quikr আসলে এমন ওয়েবসাইট যেখানে আপনি পুরাণ যে কোনো জিনিস বা product বিক্রি করতে পারবেন। সেটা যাই হোক, bike, মোবাইল, টিভি, Car, computer, ল্যাপটপ বা যে কোনো জিনিস।আপনি এই দুটি ওয়েবসাইটে গিয়ে পুরোনো জিনিস বিক্রি করে টাকা আয় করতে পারবেন।আপনার ঘরে যদি তেমন কিছু পুরোনো জিনিস আছে তবে সেটা তো আপনি বিক্রি করতেও পারবেন আর তার ওপরেও, যদি কোনো পুরোনো bike বা car বিক্ৰী করার দোকান আপনার চিনা থাকে তাহলে আপনি কমদামে ওদের থেকে জিনিস কিনে আবার বেশিদামে Olx বা Quikir ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিক্রি করে টাকা ইনকাম করতে পারেন।আর, এগুলি আপনি নিজের ঘরে বসে থেকেই করতে পারবেন।আপনি যা বিক্রি করতে চান, সেটার ফটো উঠিয়ে OLX বা QUIKR ওয়েবসাইট আপলোড করে জিনিস বা যা বিক্রি করতে চান তার বিষয়ে লিখে দাম সহ লিখে দেন।বাস, তারপর কিছু সময়ের মধ্যে কাস্টোমার পাওয়া শুরু হয়ে যাবে। তো, এমনি ভাবে ঘরে থেকে পুরোনো জিনিস SELL করে আপনি পয়সা আয় করতে পারবেন।

⭐⭐⭐⭐⭐.Short link website

আপনি কি short link ওয়েবসাইটের কথা জানেন। যদি না জানেন , তাহলে জেনে রাখুন, নিজের মোবাইল বা কম্পউটার থেকে ডলার ইনকাম করার এইটা অনেক সোজা এবং ১০০%💥 সত্যির উপায়। আপনার বেশি কিছু করার দরকার নেই।
Short link website-থেকে অনলাইন ইনকাম করুন:-

আপনার প্রথমে কিছু short link ওয়েবসাইটে গিয়ে account রেজিস্টার করতে হবে। কিছু trusted এবং ভালো short link ওয়েবসাইটের নাম হলো – Shorte.st, adf.ly, AL.LY, Blv.me, Linkshrink.Net ইত্যাদি । লিংকে ক্লিক করে এখনই রেজিষ্ট্রেশন করুন এবং আজ থেকে অনলাইন টাকা ইনকাম করুন। 

আপনি এগুলোর যেকোনো একটা বা প্রত্তেক টাতেই account বানাতে পারেন।এখন আপনাকে বলি, এই short link ওয়েবসাইট গুলির মাধ্যমে আপনি টাকা কিভাবে আয় করবেন। আসলে, এই ওয়েবসাইট গুলোকে link shortener website বলা হয়।এখানে, আপনাকে একটা box দেয়া হয় যেখানে আপনি যেকোনো ওয়েবসাইটের URL address link তা past করে তাকে ছোট (short) করতে পারেন।আপনি ইন্টারনেট থেকে যেকোনো আর্টিকেল, ভিডিও, গান বা যেকোনো ওয়েবসাইটের URL address কপি করে তাকে এই URL shortener ওয়েবসাইট গুলির মাধ্যমে ছোট করে দিতে পারেন।যেমন, আপনি যদি আমার ব্লগের কোনো একটি আর্টিকেলের URL link ছোট করেন, তাহলে সেটা এমন দেখতে হবে https://gf.ys.com যে দেখে কেউ বুঝবেইনা সেটা কার website. কিন্তু কথা হলো, এই URL shortener ওয়েবসাইট থেকে টাকা কিভাবে ইনকাম করা যাবে?

তাই তো আপনি ভাবছেন।

আসলে, যখন আপনি কোনো ওয়েবসাইট বা ব্লগের বা ভিডিওর URL Address এই URL shortener ওয়েবসাইটে গিয়ে ছোট করবেন, তখন লিংক এড্রেস তা ছোট হবার সাথে সাথে ওখানে কিছু advertisement ও লাগিয়ে দেবা হয়।আর এর ফলে, যখন কেউ আপনার short করা (ছোট করা) URL address এ ক্লিক করবেন তখন original ওয়েবসাইটে যাবার আগে কিছু advertisement দেখানো হবে।এখন, এর ফলে আপনাকে প্রতি valid adview এর ওপর টাকা দেবা হবে।কোনো কোনো Link shortener ওয়েবসাইট আপনাকে ১০০০ ভিউ তে ৫ থেকে ১৫ ডলার দেবে বা কেউ কেউ ৫ থেকে ১০ ডলার। কিন্তু ইনকাম আপনার ভালোই হবে।
আপনি সবটুকু নিজে নিজেই করতে পারবেন। আপনার খালি, ইন্টারেস্টিং আর ভালো ভালো ভিডিও, আর্টিকেল বা ওয়েবসাইট url address গুলো এই link shortener ওয়েবসাইট গিয়ে ছোট করতে হবে আর যতোটা সম্ভব facebook group , wahatsapp group বা অন্য সোশ্যাল মিডিয়া তে শেয়ার করতে হবে তারপর, যতোটা ভিসিটর্স আপনার লিংকে ক্লিক করে আপনার দেবা URL address এ যাবে তারা advertisement দেখবে আর আপনি টাকা আয় করবেন।

😪😪.Android apps

হে আপনি ঠিক শুনেছেন, এখন আপনি বিভিন্ন Android  এপ্স থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। কিন্তু, নিজের মোবাইল থেকে টাকা আয় করার এই মাধ্যমে আপনার খুব একটা বেশি ইনকাম হবে না।
Android apps-থেকে অনলাইন ইনকাম করুন

যদি আপনি একটা student, housewife বা retired person তাহলে extra কিছু ইনকাম করার জন্য এই উপায় ব্যবহার করতে পারেন।Google play store এ গিয়ে আপনি “আর্নিং apps, অনলাইন  app বা ফ্রি recharge app” বলে সার্চ করলেই আপনি অনেক এমন apps পেয়ে যাবেন যেখানে আপনাকে বিভিন্ন কাজের জন্য real টাকা দেবে।এমন পয়সা কমানোর কিছু best apps হলো “Truebalance” , “MCent“, “Amulyam“, “Pocket Money“, “TaskBucks” আরো অনেক।এই apps গুলো আপনি google play store থেকে ফ্রীতে download করে মোবাইল থেকে ইনকাম করতে পারবেন।এই টাকা কমানোর apps গুলো আপনাকে এমনি এমনি পয়সা দেয়না। App ডাউনলোড করার পর আপনার অনেক রকমের কাজ করতে হবে।যেমন – apps downloading, app রেফার করা, video দেখা ইত্যাদি । আর, এই কাজগুলির বিনিময়ে আপনাকে কিছু টাকা app এর তরফ থেকে দেয়া হয়।ইনকাম করা টাকা আপনি অনেক রকম ভাবে হাতে পেতে পারেন। যেমন – paytm cash হিসেবে, ফ্রি মোবাইল রিচার্জ, ফ্রি ডিশ টিভি রিচার্জ, bank account transfer ইত্যাদি ।

⭐⭐⭐.User Testing:-


এই ওয়েবসাইটি খুবই মজার। এখানে অ্যাকাউন্ট খুলে ভিডিও টেস্ট সমাপ্ত করার পর আপনি ইমেলে নতুন ভিডিও টেস্টের নোটিফিকেশন পেতে শুরু করবেন।

User Testing-থেকে অনলাইন ইনকাম করুন

তারা আপনাকে একটা ওয়েবসাইটের রিভিউ বা টেস্ট করার কাজ দেবে আর সেটা সফলভাবে সম্পন্ন করার পাশাপাশি আপনাকে আপনার কম্পিউটারের স্ক্রিন শর্ট তুলে তাদেরকে পাঠাতে হবে।প্রতিটি ওয়েবসাইট টেস্ট করতে ১৫ থেকে ২০ মিনিট সময় লাগবে। মূলত: ওয়েবসাইটি ভিজিট করে টেস্ট করে দেখতে হবে, একজন ইউজারের জন্য ওয়েবসাইটি কতটা গুরুত্বপূর্ণ বা ইউজার ফ্রেন্ডলি।
আর প্রতিটি ওয়েবসাইটের টেস্টের জন্য তারা আপনাকে ১০ থেকে ১৫ ডলার বা ১ হাজার টাকা থেকে ১ হাজার ৫০০ টাকা পেমেন্ট দেবে।

⭐.Perk-পার্ক  

এই ওয়েবসাইটি খুব দ্রুত এগোচ্ছে এবং আপনার ইনকামের জন্য তারা প্রতিনিয়তই নতুন নতুন রাস্তা খুলছে। এই ওয়েবসাইটে সবচেয়ে ভাল এবং দ্রুত ইনকামের রাস্তা হচ্ছে তাদের অনেকগুলো অ্যাপের মাঝ থেকে PerkTv সহ যে কোন একটি অ্যাপ ডাউনলোড করে আপনার ঘরে বসে তাদের টিভি দেখতে, যার নাম পার্ক টিভি।

Perk-পার্ক =থেকে অনলাইন ইনকাম করুন।

তবে এরা আপনাকে কোন ক্যাশ টাকা না দিয়ে অনলাইন গিফট্ কার্ড দেবে যা দিয়ে আপনি আমাজন, ওয়ালমার্ট, গ্যাপ, স্টারবাক্স, টার্গেটসহ আর অনেকগুলো অনলাইন প্রোডাক্ট সেলিং প্লাটফর্ম থেকে মোবাইল, ট্যাব, ল্যাপটপসহ যে কোন পণ্য কিনতে পারবেন।

⭐⭐.TopCashBack

এই ওয়েবসাইটি একটা জায়গায় অদ্বিতীয় আর তা হচ্ছে এ ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি যে অনলাইন কেনাকাটা করলেই এরা আপনাকে ১০০% কমিশন দিয়ে দেবে। তার মানে আপনি যে টাকার কেনাকাটা করবেন, সে টাকাটাই আবার কমিশন হিসেবে পেয়ে যাবেন।
TopCashBack-থেকে অনলাইন ইনকাম করুন।

দারুণ না! কিন্তু আপনাকে যদি পুরো টাকাই এরা দিয়ে দেয় তাহলে তাদের ব্যবসা কী! মাথায় ঘুরছে না প্রশ্নটা! তাদের ব্যবসা হচ্ছে হোম পেজে বিভিন্ন কোম্পানীর বিজ্ঞাপন ও প্রোপাইল প্রদর্শন যা থেকে তারা এর থেকে বেশি আয় করে নেয়।এছাড়াও তাদের আরো কিছু ইনকামের রাস্তা রয়েছে যা আপনার না জানলেও চলবে। আপনি কেনাকাটা শুরু করুন আর পুরো টাকাটাই আবার কমিশন হিসেবে ফেরত নিয়ে নিন।topcashback এরা পেপাল পেটিএম বা ব্যাংকের মাধ্যমে টাকা দেয়।

⭐⭐.Zoombucks-

আরো একটি ওয়েবসাইট যা আপনাকে ভিডিও দেখার জন্য পেমেন্ট দেবে। আপনি তাদের ভিডিও দেখবেন আর এ জন্য তারা আপনাকে টাকা দেবে।
Zoombucks-থেকে অনলাইন ইনকাম করুন।
তবে ভিডিও দেখার বাইরেও গেম খেলাসহ এ ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করার আরো কিছু পথ আছে।পেপালে মধ্যমে টাকা উঠানো হয।

⭐.FushionCash

এই ওয়েবসাইটি অনলাইনে তাদের ভিডিও দেখা এবং এফএম রেডিও শোনার আপনাকে পেমেন্ট করবে।
FushionCash-থেকে অনলাইন ইনকাম করুন।
তবে এই টিভি এবং রেডিও তাদের নিজস্ব নয়, থার্ড পার্টির যাদের কাছ থেকে তারা পেমেন্ট পায় আর তাদের দর্শক ও শ্রোতাদের পেমেন্ট দেয়।

⭐.CashCrate

ভিডিও দেখা, শপিং করা, গেম খেলা, বিভিন্ন অনলাইন প্রতিযোগীতায় অংশ নেয়া সহ আরো নানা ধরণের কাজের জন্য এই ওয়েবসাইটি পেমেন্ট করে থাকে।
CashCrate-থেকে অনলাইন ইনকাম করুন
এখান থেকে অর্থ তুলতে পেপাল বা ব্যংক একাউন্ট ব্যাবহার করতে পারেন।

🔥⭐⭐.Swagbucks

ভিডিও দেখা থেকে শুরু করে অনলাইন সার্ভে কিংবা গেম খেলাসহ নানা ধরণের মজার মজার কাজ আছে এই ওয়েবসাইটে যা আপনাকে একই সাথে এগুলো করার জন্য পেমেন্টও করবে।
Swagbucks-থেকে অনলাইন ইনকাম করুন।
অনলাইনে আপনি যে কাজগুলো সচারাচর এমনিই করে থাকেন, সেগুলোই করে প্রতিদিন এ ওয়েবসাইটে ২৫ থেকে ১০০ ডলার বা ২০০০ টাকা থেকে ৮০০০ টাকা ইনকাম করতে পারবেন এছাড়াও এ ওয়েবসাইট থেকে ইনকামের আরো একটি চমকপ্রদ পথ রয়েছে। আর তা হচ্ছে SB Points ফর্মে শপিং করা যা আপনাকে অনলাইনে কেনাকাটার জন্য গিফট্ কার্ড দেবে।আর ওই গিফট্ কার্ড দিয়ে আপনি আমাজান, ওয়ালমার্টসহ আরো কিছু অনলাইন মার্কেটপ্লেস থেকে আপনার নিজের জন্য কেনাকাটা করতে পারবেন।

⭐⭐⭐. www.upwork.com

বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং সাইট কোনটি? অন্তত আমার কাছে মনে হয় উত্তরটা হবে ‘আপওয়ার্ক’। এটি প্রথমে ওডেস্ক নামে কার্যক্রম শুরু করে।
আপওয়ার্ক – www.upwork.com-থেকে অনলাইন ইনকাম করুন।

 ২০১৫ সালে সাইটটি ওডেস্ক নাম পরিবর্তন করে আপওয়ার্ক নাম নেয়। তখন আরেকটি জনপ্রিয় ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম ‘ইল্যান্স’ আপওয়ার্কের সাথে একীভূত হয়।আপওয়ার্কে ফিক্সড এবং ঘন্টা ভিত্তিক (আওয়ারলি) রেটে কাজ পাওয়া যায়। এখান থেকে অর্থ তুলতে পেপাল, পেওনিয়ার এবং ব্যাংক ট্র্যান্সফার পদ্ধতি উপলভ্য আছে।

⭐⭐⭐⭐. www.fiverr.com

Get Work Done Faster On Fiverr, With Confidence. www.fiverr.comফাইভারে ৫ ডলার থেকে শুরু করে ভাল ৬০০অ্যামাউন্টের প্রজেক্ট পোস্ট করা হয়। লোগো ডিজাইন, ভয়েস রেকর্ড, আর্টিকেল লেখা, প্রভৃতির জন্য ফাইভার অত্যন্ত জনপ্রিয়।
ফাইভার – www.fiverr.com-থেকে অনলাইন ইনকাম করুন।

বায়ার রা সরাসরি ফ্রিল্যান্সার সার্চ করেও প্রজেক্ট অফার করেন এই সাইটে। ফাইভারে সবই ফিক্সড প্রাইসের প্রজেক্ট (ঘন্টাভিত্তিক কোনো জব ফাইভারে এখনও আসেনি)।ফাইভার থেকে আয়কৃত অর্থ তোলার জন্য পেপাল, পেওনিয়ার এবং ব্যাংক ট্র্যান্সফার পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারেন।

⭐⭐⭐⭐⭐. ফ্রিল্যান্সার –


ফ্রিল্যান্সার ডটকম হচ্ছে একদম প্রথম সারিতে থাকা একটি অনলাইন ভিত্তিক জব মার্কেটপ্লেস, যেখানে ফিক্সড প্রাইস এবং আওয়ারলি রেটের প্রজেক্ট পাওয়া যায়।
ফ্রিল্যান্সার – www.freelancer.com-থেকে অনলাইন ইনকাম করুন।

এখানে প্রচুর অনলাইন জব রয়েছে, এবং ফ্রিল্যান্সারের সংখ্যাও অনেক। কোম্পানিটির হেড অফিস অস্ট্রেলিয়ায়।ফ্রিল্যান্সার ডটকম থেকে প্রাপ্ত প্রজেক্টে কাজ করে অর্জিত অর্থ উত্তোলন করার জন্য আছে পেপাল, স্ক্রিল, পেওনিয়ার এবং ব্যাংক ট্র্যান্সফার সিস্টেম।

⭐⭐⭐. Peopleperhour

www.peopleperhour.com: Get the most from PeoplePerHour and live your work dream.
লন্ডন, যুক্তরাজ্য ভিত্তিক পিপল পার আওয়ার হচ্ছে অনলাইনে আয় করার অন্যতম জনপ্রিয় সাইট।
Peopleperhour-থেকে অনলাইন ইনকাম করুন।
এখানে ফিক্সড প্রাইস ও আওয়ারলি রেটে প্রজেক্ট পাওয়া যায়। পিপল পার আওয়ার থেকে আয়কৃত অর্থ তোলার জন্য পেপাল, স্ক্রিল, পেওনিয়ার এবং ব্যাংক ট্র্যান্সফার পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারেন।

⭐⭐. 99designs.com-

আপনি যদি ফ্রিল্যান্স ডিজাইনার হয়ে থাকেন, তাহলে ৯৯ডিজাইনস আপনার জন্য বেশ ভালো একটি কাজের জায়গা হতে পারে।
99designs.com-থেকে অনলাইন ইনকাম করুন।
এখানে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বায়াররা প্রজেক্ট অফার করেন এবং পেশাদার ডিজাইনারদের দ্বারা লোগো, ওয়েবসাইট ও অন্যান্য গ্রাফিক ডিজাইন করিয়ে নেন।৯৯ডিজাইনস থেকে আপনার অর্জিত অর্থ তোলার জন্য পেওনিয়ার এবং পেপাল ব্যবহার করতে পারবেন। ৯৯ডিজাইনস যুক্তরাষ্ট্রের সান ফ্র্যানসিস্কো ভিত্তিক একটি বহুজাতিক কোম্পানি, যা অনলাইন ডিজাইনের জন্য সবচেয়ে বেশি পরিচিত।

⭐⭐.  www.guru.com

গুরু ডটকম হচ্ছে একটি অ্যামেরিকান ফ্রিল্যান্সিং সাইট, যেখানে ফিক্সড প্রাইস এবং পার্ট-টাইম- উভয় প্রকারের প্রজেক্ট পাওয়া যায়।

www.guru.com-থেকে অনলাইন ইনকাম করুন।

গুরু ডটকম থেকে অর্থ উত্তোলনের জন্য পেপাল, পেওনিয়ার ও ব্যাংক ট্র্যান্সফার পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারেন।
Conclusion

তো বনধুরা, আজ আমি আপনাদের 20+টি সহজ এবং ১০০% রিয়েল উপায় বললাম যার দ্বারা আপনিও অনলাইন নিজের ঘরে বসে  থেকেই টাকা কমাতে পারবেন।এর মধ্যে এমন কিছু উপায় বলেছি যেগুলো আমি নিজে এতটা করে দেখিনাই কিন্তু অনেকের মুখেই শুনেছি যে তারা এগুলির মাধ্যমে  টাকা ইনকাম করে।আর এমন কিছু উপায়ও বলেছি যেমন , ব্লগিং এবং YouTube channel যার মাধ্যমে আপনি এতটা income করতে পারবেন যে আপনার আর অন্য কোনো job বা business করার প্রয়োজন হবে না।

COMMENTS

BLOGGER: 21
  1. This comment has been removed by a blog administrator.

    ReplyDelete
  2. vaiya apnar sathe contract korte chai sorry comment e bolar jonno

    ReplyDelete
  3. ওয়েল, গ্রেট আর্টিকেল ব্রো 💕💕

    ReplyDelete
  4. বেশ সুন্দর লিখেছেন এখান থেকে অনেক কিছু জানা গেল ধন্যবাদ ভাই।

    ReplyDelete
  5. Thanks for share this information💕Thank you so much..! 💋

    ReplyDelete
  6. ভাই ক্যাপচাক্লাব থেকে টাকা তুলেছেন কেউ?

    ReplyDelete
  7. ভাই ক্যাপচাক্লাব থেকে ‍কি কেউ পেমেন্ট পেয়েছেন?

    ReplyDelete
    Replies
    1. তৌফিক,, ভাই আপনি বিশ্বাস করেন আমি একটা সাইট ১০০ ডলার পাইছিলাম পরে আবার যখন ৪০ হয় তখন সাইট আমার একাউন্ট ডিজেবল করে দেয়। তারপর আমি কোনো “ক্যাপচা” সাইট কে বিশ্বাস করি না।

      Delete
    2. তৌফিক ভাই,, এই ১০০ ডলার দিয়ে আমার অনলাইন জগতে পা দেওয়া ভাই।

      Delete
  8. Thanks sir share this information.He has really sweet responses to basically all of these:Thank you so much💋✅😂🤣💋💕💋

    ReplyDelete
  9. Replies
    1. স্যার আমি গুগলে অনলাইন ইনকাম জড়িত অনেক পোস্ট পরেছি কিন্তু কেউ এতো সুন্দর করে বুঝাতে পারেনি, আপনি যেভাবে অনলাইন ইনকাম সম্পর্কে বুজিয়েছেন।
      আমার সমস্ত কনফিউশোন দুর হয়ে গেছে।আপনার সাইট ভিজিট করে আমি খুব উপকৃত হয়েছি।
      আমি আপনার ব্লগটি স্যাবস্কাইব করে রাখলাম এই রকম সুন্দর পোস্ট পাওয়ার জন্য। আশা করি আপনি আরও বৈধ উপায় নিয়ে আমাদের মাঝে হাজির হবেন। স্যার আপনাকে অনেক অনেক বেশি ধন্যবাদ।

      Delete
  10. আপনার ওয়েব সাইটটি সত্তিই অস্বাধারণ। বিশেষকরে অনলাই আয়ের যে আর্টিকেল গুলো রয়েছে। আমার খুব ভালো লাগে। 100 তে 100 রেটিং আপনাকে দিলাম।

    ReplyDelete
  11. অনেক গুলো ইনকাম সোর্স দেখিয়ে দিলেন।
    ধন্যবাদ

    ReplyDelete
By commenting you acknowledge acceptance of Whatisloved.com-Terms and conditions Use

Name

a good morning quotes,1,Beauty,1,Blog,60,general knowledge,23,Health,2,images for good morning quotes,1,Love,44,Motivational,28,Quotes,12,Recipe,3,
ltr
item
Accept The Right Knowledge:-𝓦𝓱𝓪𝓽 𝓲𝓼 𝓛𝓸𝓿𝓮: অনলাইনে আয় ২০২০: অনলাইনে আয় করার সহজ উপায়! নতুনদের জন্য (Step By Step)
অনলাইনে আয় ২০২০: অনলাইনে আয় করার সহজ উপায়! নতুনদের জন্য (Step By Step)
কোন পুজি ছাড়াই প্রতি মাসে ঘরে বসে অনলাইন ইনকাম করুন লক্ষ লক্ষ টাকা ইন্টারনেট বা অনলাইন থেকে পার্ট-টাইম বা অল-টাইম আয় করুন।
https://1.bp.blogspot.com/-YscUAISZweQ/X0ONgIZDvvI/AAAAAAAAIFE/VrZ7jhhpugITUAegdAglM-zsdqflbl_EgCLcBGAsYHQ/s1600/%25E0%25A6%2585%25E0%25A6%25A8%25E0%25A6%25B2%25E0%25A6%25BE%25E0%25A6%2587%25E0%25A6%25A8%25E0%25A7%2587%2B%25E0%25A6%2586%25E0%25A6%25AF%25E0%25A6%25BC.jpg
https://1.bp.blogspot.com/-YscUAISZweQ/X0ONgIZDvvI/AAAAAAAAIFE/VrZ7jhhpugITUAegdAglM-zsdqflbl_EgCLcBGAsYHQ/s72-c/%25E0%25A6%2585%25E0%25A6%25A8%25E0%25A6%25B2%25E0%25A6%25BE%25E0%25A6%2587%25E0%25A6%25A8%25E0%25A7%2587%2B%25E0%25A6%2586%25E0%25A6%25AF%25E0%25A6%25BC.jpg
Accept The Right Knowledge:-𝓦𝓱𝓪𝓽 𝓲𝓼 𝓛𝓸𝓿𝓮
https://www.whatisloved.com/2020/01/online-income-.html
https://www.whatisloved.com/
https://www.whatisloved.com/
https://www.whatisloved.com/2020/01/online-income-.html
true
4482321778671695914
UTF-8
Loaded All Posts Not found any posts VIEW ALL Readmore Reply Cancel reply Delete By Home PAGES POSTS View All RECOMMENDED FOR YOU LABEL ARCHIVE SEARCH ALL POSTS Not found any post match with your request Back Home Sunday Monday Tuesday Wednesday Thursday Friday Saturday Sun Mon Tue Wed Thu Fri Sat January February March April May June July August September October November December Jan Feb Mar Apr May Jun Jul Aug Sep Oct Nov Dec just now 1 minute ago $$1$$ minutes ago 1 hour ago $$1$$ hours ago Yesterday $$1$$ days ago $$1$$ weeks ago more than 5 weeks ago Followers Follow THIS PREMIUM CONTENT IS LOCKED STEP 1: Share to a social network STEP 2: Click the link on your social network Copy All Code Select All Code All codes were copied to your clipboard Can not copy the codes / texts, please press [CTRL]+[C] (or CMD+C with Mac) to copy